ঝালকাঠিতে মিথ্যা মামলায় হয়রানীর অভিযোগ

Wednesday, January 6th, 2021

ঝালকাঠি প্রতিনিধিঃ: ঝালকাঠি সদর উপজেলার চামটা গ্রামে সড়ক ও জনপথ বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত এমএলএসএস মোঃ রুস্তÍুম আলী হাওলাদার গত ৬/১১/২০১২ এবং ৫/৪/২০১০ ইং তারিখে আলাদা দুটি দলিলের মাধ্যমে সাড়ে ১৫ শতাংশ জমি সাব কবলা মুলে ক্রয় করেন।

তিনি সম্পূর্ণরুপে ভোগ দখল করার সময় দাতা আলেয়া বেগম’র ভাই মোঃ কালাম তালুকদার জমি গ্রহিতা রুস্তÍুম হাওলাদার এর স্ত্রী হালিমা বেগম দখলে গেলে বিভিন্নভাবে হুমকি ধামকি ও হয়রানীর চেষ্টা করে তখননন হালিমা বেগম বাদী হয়ে ঝালকাঠি অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৪৪/১৪৫ ধারায় মামলা দায়ের করেন যার নং-৪২৯/২০, তারিখ-১৪/১২/২০২০। পরবর্তিতে আবুল কালাম হিংসা বশত হয়ে হালিমা বেগমের স্বামী বর্তমানে গ্রাম্য চিকিৎসক রুস্তÍুম হাওলাদারের নামে ঝালকাঠির একটি আদালতে হয়রানীমুলক চুরি মামলা দায়ের করে (নং-সিআর ৩৫৩/২০২০) যা বর্তমানে ঝালকাঠি থানার এসআই গাউছুল আযম তদন্ত করছেন।

এর আগে ভুক্তভোগী রু¯‘ম হাওলাদার বিষয়টি লিখিতভাবে অবহিত করেন তখন চেয়ারম্যানের প্রতি কর্ণপাত না করে প্রতারক কালাম তালুকদার আদালতে হয়রানীমূলক মামলা করে। এ দিকে বাসন্ডা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মোবারক হোসেন মল্লিক মুঠোফোনে জানান, চামটা গ্রামের কালাম তালুকদার একজন ঠক, প্রতারক এবং বহু অপকর্মের হোতা সে আইনের তোয়াক্কা না করে নিজের পেশী শক্তি ও অশ্লীলপনার মাধ্যমে এলাকায় খারাপ লোক হিসেবে পরিচিতি অর্জন করেছে তাকে আইনের আওতায় এনে মিথ্যা মামলা দায়েরের কারনে ২১১ ধারায় দোসী সাব্যস্ত করে জেলে পাঠালে এ দেশে মিথ্যা মামলার জট কমতো বলে মোবারক হোসেন মল্লিক চেয়ারম্যান মনে করেন। এ বিষয়ে ঝালকাঠি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ খলিলুর রহমান মুঠোফোনে জানান, মামলাটি তদন্ত করে আদালতে নির্ধারিত তারিখে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।