ধর্মপাশায় হাতুড়ি ডেন্টাল ও অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে ছহাছড়ি

Saturday, October 24th, 2020

গিয়াস উদ্দিন রানা,ধর্মপাশা(সুনামগঞ্জ):: সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার গোলকপুর বাজারে হাতুড়ি ডেন্টাল ডাক্তারের বিলাস বহুল চেম্বার ও অবৈধ ডায়াগনস্টিক সেন্টারে গ্রামের সাধারন মানুষদের ধোঁকা দিয়ে রক্ত ও মলমূত্র পরিক্ষায় হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা প্রতারিত হচ্ছে গ্রামের সাধারন মানুষ। ভূয়া ডাক্তারি সনদপত্র ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার। ওই হাতুড়ি ডেন্টাল ডাক্তার নিজেই ডায়াগনস্টিক সেন্টারে পরিক্ষা নিরিক্ষার পরামর্শ দিচ্ছে বলে ওই বাজারের এ্যালোপ্যাথিক ফার্মেসীর ঔষধ ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসীর অভিযোগ।

ওই ধর্মপাশা উপজেলার প্রত্যান্ত গ্রামাঞ্চল সুখাইড় রাজাপুর উত্তর ইউনিয়নের গোলকপুর বাজার। ওই বাজারে ১০ হতে ১৫টি ফার্মেসী থাকলেও ঔষধ ব্যবসায়িদের ফার্মাসিষ্ট প্রশিক্ষন নেই। ওই বাজারে পল্লী চিকিৎসকরা রোগীদের পরিক্ষা নিরিক্ষা করে ঔষধ সেবনের পরামর্শ দিচ্ছেন। ওই বাজারে নতুন এক প্রতারক হাতুরি ডেন্টাল চিকিৎসক। সে ডেন্টাল এসোশিয়েশনের মধ্যমে একটি অনুমোদন নিয়ে দেশের বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে চেম্বার করে রোগী চিকিৎসার করলেও কিছু দিন যেতে না যেতেই রাতের আধারে পালিয়ে ওই স্থান ত্যাগ করার একাধিক অভিযোগ রয়েছে। ওই চিকিৎসক এখন উপজেলার গোলকপুর বাজারে ঘর ভাড়া নিয়ে ডেন্টাল ক্লিনিক নাম দিয়ে বসেছে ব্যয়বহুল চেম্বার করে ধোঁকাবাজির ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ওই চেম্বারে ভূয়া একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার রয়েে মাধ্যমে একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টার খোলা হয়েছে। ওই ডয়িাগনস্টিক সেন্টারে ভুয়া টেশনিশিয়ানের মাধ্যমে মলমূত্র পরিক্ষা নিরিক্ষা করা হয় বলে অগনিত অভিযোগ রয়েছে।
এখন প্রন্ত হলো ওই বাজারে সঠিক রোগ পরিক্ষা নিরিক্ষার জন্য কোন ডাক্তার নেই। পল্লাী চিকিৎকের উপর নির্ভরশীল। কোন পল্লী চিকিৎসক ওই ভুয়া ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রোগীদের রক্ত-মলমূত্র ইত্যাদি পরিক্ষার জন্য পাঠায়নি। ভুয়া ডেন্টাল চিকিৎসক সে নিজেই রোগীদের পরার্মশ দেয় রক্ত ও মলমূত্র পরিক্ষার জন্য। এভাবেই গ্রামের সাধারন মানুষের সাথে প্রতারনা করে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা।
এব্যাপারে ডেন্টাল চিকিৎসক প্রতারক পহিদুল ইসলাম এর প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদি দেখতে চাইলে সে বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে না পারলেও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের ভুয়া লাইসেন্স ও টেকনিশিয়ান এর জালিয়াতির মাধ্যমে ভূয়া সার্টিফিকেট তৈরী করে দেখানো হয়।