হিজলায় বিদ্যুৎপিষ্টে শ্রমিক নিহত॥ লাশ ঝুলে আছে সেবাচিমে

Saturday, September 19th, 2020

বিজয় নিউজ:: অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগে প্রাণ গেল মিরাজ (১৮)। শুক্রবারও লাস বরিশাল সেবাচিমে হিমঘরে। নিঃস্তব্দ হিজলা । দায় কার !
বৃহস্পতিবার বেলা সারে বারোটার টার দিকে হিজলা উপজেলা স্বাহ্য কম্পেøক্সে এর সামনে মিরাজ ১৮ নামের এক যুবক অবৈধ বিদ্যুত লাইনে বিদ্যুৎপিষ্টে নিহত হয়। হাসপাতালে নেয়ার পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ অনিক দেব মৃত ঘোষনা করেন। বিকেল ৪ টার দিকে হিজলা থানা পুলিশ লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হিজলা থানায় নিয়ে আসেন।

সূত্র জানায় উপজেলা সদর বড়জালিয়া গ্রামের কুদ্দুছ বেপারীর পুত্র মিরাজ পেশায় রাজমিস্ত্রি। হিজলা স্বাহ্যকম্পেক্সের সামনে হিজলা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণসম্পাদক ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ শহিদুল ইসলাম রিপন খানের কাজ করতে গিয়ে মৃত্যু হয় মিরাজের।
ঘটনাস্থলে থাকা বাড়ির মালিক লিপি জানান, তাদের ঘরের পার্শ্বে লোকটি কাজ করছিল, সাথে ছিল তার চাচা অলিউদ্দিন, ভগ্নিপতি বাচ্ছু, খোকন খা। পাশের একটি ঘর থেকে অবৈধ লাইনে কাজ করতে গিয়ে র্দুঘটনার স্বীকার।

লিপি আরও জানান, একা ঘরে বসবাস করেন তিনি, দিনে কাজ করেন সেবা ডায়গনিষ্টিক সেন্টারে। ঘটনার সময় লিপি পার্শ্ববর্তী সেবা ডায়গনিষ্টিক সেন্টারে আয়ার কাজ করছিলেন। পরে শুনেন মিরাজ বিদ্যুৎপিষ্ট হয়ে মারা যান। শহিদুল ইসলাম রিপন খান এবং তার ভাইয়েরা মিলে লিপির ঘর এবং ঘরের চালা তুলে নিয়ে সেখানে গড়ে তোলেন অট্ট্রালিকা। বিষয়টি বর্তমান উপজেলা নির্বাহী অফিসার বকুলচন্দ্র কবিরাজকে অবহিত করা হলে তিনি স্থাপনার যাবতীয় কর্যক্রম বন্ধ করে দেন। ইউএনও প্রশিক্ষনে থাকায় ক্ষমতার অপব্যবহার করে রিপন খান ও তার ভাইয়েরা ঐ স্থানে স-দলবলে কাজ করেন। বাধঁসাধে বিদ্যুত।

পার্শ্ববর্তী মাসুদ নামের জনৈক ব্যাক্তির কাছ থেকে অবৈধ সংযোগে কাজ করতে গিয়ে ঘটনার সূত্রপাত বলে অভিযোগ স্থানীয় দের। তাদেও দাবি অসহায় মেয়েটির পিতা নেই, মাতাও নেই, নেই স্বামী। পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গায় বসবাস করছে তিন। পানি উন্নয়ন বোর্ডের জায়গা, ঐ জায়গা থেকে লিপিকে উচ্ছেদ করে বৃহদাংশ বিক্রি করে দিয়েছেন রিপন খান। এতেই খান্ত নন। বৃহস্পতিবার অসহায় মেয়েটির ঘরের বারান্দা এবং চুলা ভেঙ্গে দিয়েছে ক্ষমতাসীনরা।
এ বিষয়ে হিজলা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক ও সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক মোঃ শহিদুল ইসলাম রিপন খান জানান, তিনি এ বিষয়ে অবগত নন।
উপজেলা ভুমি অফিসের সার্ভেয়ার আঃ কুদ্দুছ জানান, ¯’ানটি পানি উন্নয়ন বোর্ডের। লিপির অভিযোগের ভিত্তিতে স্থাপনার কাজ বন্ধ রাখা হয়। ইউএনও স্যার পশিক্ষণে, তিনি আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা।
ডাঃ অনিক দেব জানান, মিরাজ নামের এক যুবককে তার কাছে নিয়ে আসে স্বজনরা। হাসপাতালে পৌছানোর আগেই তার মৃত্যু হয়। হাসপাতালের রেজিষ্টারে তার নাম খুজে পাওয়া যায়নি।
মিরাজের সাথে কাজ করতে আসা চাচা অলিউদ্দিন, ভগ্নিপতি বা”চু, বিদ্যুতের মালিক মাসুদেও সাথে কথা বলতে চাইলে তাদের কাউকে পাওয়া যায়নি। মিরাজের বাবা জানান, তিনি কোন ঝামেলায় জড়াবেন না।
হিজলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অসিম কুমার শিকদার জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে পারিবারিক ভিত্তিতে দাফন সম্পন্ন করার প্রস্থতি নিচ্ছিছল পরিবার। পুলিশের পক্ষ থেকে সুরতহাল করে শনিবারে সেবাচিমে প্রেরণ করেন। একটি ইউডি মামলা হবে।