আগরতলা স্থলবন্দরে অনির্দিষ্টকালের জন্য বাণিজ্য বন্ধ

Monday, August 19th, 2019

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া সীমান্তের ওপারে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলা আন্তর্জাতিক স্থলবন্দরে চালু হতে যাচ্ছে ইলেকট্রনিক ডেটা ইন্টারচেঞ্জ (ইডিআই) পদ্ধতি। নতুন এই নিয়মের ‘গ্যাঁড়াকলে’ পড়েছেন বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা।
ঈদুল আজহা উপলক্ষে ৬ দিন আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ থাকার পর শনিবার ফের শুরু হওয়ার কথা। কিন্তু অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রয়েছে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য।

ত্রিপুরায় বাংলাদেশের সহকারী হাইকমিশনার কীরিটি চাকমার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বাংলাদেশের ব্যবসায়ীরা। তারা যুগান্তরকে জানান, ভারতে রফতানির অপেক্ষায় পচনশীল পণ্যবোঝাই অর্ধশতাধিক ট্রাক আখাউড়া বন্দরে আটকা পড়ে আছে।

নতুন নিয়ম চালু হওয়ার আগ পর্যন্ত আগের নিয়মে আটকে পড়া ট্রাকগুলো গ্রহণ করার জন্য ভারতীয় কর্তৃপক্ষের কাছে জোর দাবি জানানো হয়েছে। নতুবা বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন।

ভারতীয় কাস্টমস ও একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায়, আগরতলা কাস্টমস হাউসে ইডিআই জটিলতায় অনির্দিষ্টকালের জন্য এ পথে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের অভিযোগ, পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই ভারতীয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষ আগরতলা বন্দরে ইডিআই ব্যবস্থা চালু করায় ‘মুখ থুবড়ে’ পড়েছে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য। বন্ধ রয়েছে মাছ রফতানিও।

ভারতীয় কর্তৃপক্ষ বলছে, আখাউড়া-আগরতলা স্থলবন্দর সীমান্ত পথে ত্রিপুরা হয়ে পূর্বোত্তর ভারতে বাণিজ্য করতে হলে ব্যবসায়ীদেরকে অবশ্যই ইডিআই ব্যবস্থা মেনে কাজ করতে হবে।

ভারতীয় কর্তৃপক্ষের নিয়োগ দেয়া ডাটা অপারেটর কাস্টমস হাউস এজেন্সিকে (সিএইচএ) বিষয়টি দেখভালের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। আখাউড়া স্থলবন্দর সিএন্ডএফ অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি মোবারক হোসেন ভূঁইয়া ও ভুক্তভোগী একাধিক ব্যবসায়ী জানান, ভারতীয় কাস্টমস কর্তৃপক্ষের ইডিআই জটিলতায় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীরা বিপাকে পড়েছেন। পচনশীল পণ্যসহ মালবোঝাই অর্ধশতাধিক ট্রাক ভারতে খালাসের অপেক্ষায় আটকা পড়েছে আখাউড়া বন্দরে। ক্ষতির মুখে পড়েছেন ব্যবসায়ীরা।