আমার মেয়ের বোরকা নিয়ে কেন এত সমালোচনা:তসলিমাকে এআর রহমান

Saturday, February 22nd, 2020

অনলাইন ডেস্ক:: মেয়ে খাতিজা রহমানের বোরকা পরা নিয়ে ভারতে নির্বাসিত বাংলাদেশের বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনের সমালোচনায় এবার মুখ খুললেন সুরের যাদুকর এআর রাহমান।

তিনি বলেছেন, মেয়ে খাতিজা রহমান নিজের ইচ্ছেতেই বোরকা পরে। তাকে কেউ বাধ্য করেনি। খবর এনডিটিভি।

তসলিমার নাম উল্লেখ না করে এআর রহমান বলেন, আমাদের থেকেই উত্তরাধিকার সূত্রে ধর্ম-সংস্কৃতি-ঐতিহ্য পেয়েছে খাতিজা। এগুলো ওর রক্তে মেশা। ফলে, জোর করে নয়, স্ব-ইচ্ছায় খাতিজা বেছে নিয়েছে এই পোশাক। আমরা কেউ ওকে জোর করিনি।

‘এটা বোধহয় সবাই জানেন না, বোরকা শুধু ধর্মের বা জাতির প্রতীক নয়। দেশের সংস্কৃতিরও প্রতীক। যাকে আমার মেয়ে নিজের ইচ্ছেতে গায়ে তুলেছে। তারপরেও কেন এটি নিয়ে এত সমালোচনা!’
অস্কার জয়ী এ সঙ্গীতবিদ আরও বলেন, নানা ভাষা, নানা মত, নানা পোশাকের দেশ ভারত। স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে সবাই স্বাধীনভাবে খেতে-পরতে-চলতে পারেন। আমার মেয়েও তাই। তারপরেও গত একবছর ধরে ওর বোরকা পরা নিয়ে বিতর্ক চলছে।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি তসলিমা নাসরিন খাতিজার বোরকা পরিহিত একটি ছবি টুইটারে প্রকাশ করে লেখেন, ‘আমি এ আর রাহমানের গান অনেক পছন্দ করি। কিন্তু যখনই আমি তার প্রিয় মেয়েকে দেখি, আমার দম বন্ধ হয়ে আসে। শিক্ষিত ও সংস্কৃতিমনা পরিবারেও যে খুব সহজে মগজধোলাই করা যায়, তা জানা সত্যিকার অর্থেই হতাশার।’

এর তিনদিন পর ১৫ ফেব্রুয়ারি নিজের ইনস্টাগ্রামে তসলিমার সমালোচনার জবাব দেন খাতিজা রহমান।

তিনি বলেন, ‘প্রিয় তসলিমা নাসরিন, আমার পোশাকে আপনার নিশ্বাস বন্ধ হয়ে আসে বলে দুঃখ প্রকাশ করছি। কিছু মুক্ত বাতাস গ্রহণ করুন। কারণ, এতে আমার নিশ্বাস বন্ধ হয় না। বরং আমি যে অবস্থান নিয়েছি এতে গর্বিত ও ক্ষমতায়িত অনুভব করি। আপনাকে পরামর্শ দিচ্ছি, গুগলে খোঁজ নিয়ে দেখুন, সত্যিকার নারীবাদ কী। কারণ, নারীবাদ কখনও অন্য নারীকে কটাক্ষ বা বিষয়টিতে তার বাবাকে জড়িয়ে আনা নয়’।

গত বছরও রহমানের মেয়ে খাতিজার বোরকায় মুখ ঢাকা নিয়ে কথা উঠেছিল। তবে সে বার সাহসী জবাবে সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলকে থামিয়ে দিয়েছিলেন রহমান স্বয়ং।