শিক্ষার্থীদের খাবারে বিষ মেশানোর দায়ে শিক্ষকের মৃত্যুদণ্ড

Tuesday, September 29th, 2020

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: শিক্ষার্থীদের বিষাক্ত খাবার খাওয়ানোর অভিযোগে চীনের একটি কিন্ডারগার্টেনের এক শিক্ষকের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন দেশটির আদালত। মঙ্গলবার অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে এই রায় ঘোষণা করা হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, চীনের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলের হেনান প্রদেশের জিয়াওজু শহরের একটি কিন্ডারগার্টেন স্কুলের সকালে এক ধরনের বিশেষ খাবার দেয়া হয়। গত বছর ওই স্কুলের ২৫ শিক্ষার্থী খাবার খাওয়ার পর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের হাসপাতালে নেয়া হয়। পরে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক শিক্ষার্থী মারা যায়।

এ ঘটনায় স্কুলের শিক্ষক ওয়াং ইউনকে গত বছর জিয়াওজু থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আদালত বলেছেন, সহকর্মী শিক্ষকের সঙ্গে কলহের প্রতিশোধ নিতে শিক্ষার্থীদের সকালের নাস্তায় সোডিয়াম নাইট্রেট মিশিয়ে দেন ওয়াং ইউন।

আদালত এই শিক্ষককে ঘৃণ্য এবং দুষ্ট প্রকৃতির বলে অভিহিত করেছেন। গত বছরের ২৭ মার্চের এই ঘটনা চীনে ব্যাপক ক্ষোভ তৈরি করে এবং মুহূর্তের মধ্যে বিশ্ব গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়।

সেই সময় জানানো হয়, সকালের নাস্তা খাওয়ার পর স্কুলটির ২৩ শিক্ষার্থীর বমি এবং চেতনা হারিয়ে ফেলতে শুরু করে। শিক্ষক ওয়াং ইউন খাবারে বিষ মিশিয়েছেন বলে অভিযোগ ওঠার পর পুলিশ এ ঘটনার তদন্ত শুরু করে।

সোমবার জিয়াওজুর একটি আদালতে ওয়াং ইউনের মৃত্যুদণ্ডের সাজা ঘোষণা করেছেন। আদালতের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শিক্ষার্থী ব্যবস্থাপনা নিয়ে অপর এক শিক্ষকের সঙ্গে বাক-বিতণ্ডার প্রতিশোধ নিতে শিক্ষার্থীদের সকালের নাস্তায় সোডিয়াম নাইট্রেট মিশিয়ে দেন ওয়াং।

সোডিয়াম নাইট্রেট দিয়ে মাংস মেরিনেট করে রাখলে সেটি ফ্রিজে একমাস পর্যন্ত সংরক্ষণ করে রাখা যায়। কিন্তু মিশ্রণের পরিমাণ অতিরিক্ত হলে তা বিষাক্ত হতে পারে।

তবে ওয়াং শুধুমাত্র স্কুলের শিক্ষার্থীদের খাবারে যে প্রথমবারের মতো সোডিয়াম নাইট্রেট মিশ্রণ ঘটিয়েছেন বিষয়টি তেমন নয় জানিয়ে আদালত বলেছেন, এর আগেও তিনি অনলাইনে এই নাইট্রেট কিনে স্বামীর খাবারে প্রয়োগ করেছিলেন। এ ঘটনায় তার স্বামীও হালকা অসুস্থতায় ভোগেন।

স্কুলের শিক্ষার্থীদের খাবারে সোডিয়াম নাইট্রেট প্রয়োগের ঘটনায় দেশটিতে ব্যাপক আলোড়ন তৈরি হয়েছিল। সেই সময় অসুস্থ শিক্ষার্থীদের হাসপাতালে নেয়া হয়। দীর্ঘদিন চিকিৎসার পর অনেকে সুস্থ হয়ে উঠলেও এক শিক্ষার্থী হাসপাতালে ১০ মাস কাটানোর পর চলতি বছরের জানুয়ারিতে মারা যান।

প্রত্যেক বছর চীনে সাধারণত কতসংখ্যক মানুষের মৃত্যুদণ্ডের সাজা কার্যকর হয় সেবিষয়ে দেশটির সরকার কোনও তথ্য প্রকাশ করে না। তবে দেশটিতে বছরে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় বলে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলো দাবি করছে।

চীনে সাধারণত বিষাক্ত ইনজেকশন প্রয়োগ অথবা ফায়ারিং স্কোয়াডে গুলি করে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।