বঙ্গোপসাগরে তিন ট্রলার ডুবি, নিখোঁজ ৫

Saturday, July 6th, 2019

মোঃ আমিন মারুফ হাওলাদার ।। বঙ্গোপসাগরে তিন ট্রলার ডুবি, নিখোঁজ ৫ ফাইল ছবি বৈরী আবহাওয়ায় উত্তাল থাকা বঙ্গোপসাগরে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার তিনটি ট্রলার ডুবে গেছে। এ ঘটনায় পাঁচজন জেলে নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে। ওই নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারে শনিবার সকাল থেকে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। স্থানীয় জেলেরা জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে গভীর বঙ্গোপসাগরে শুক্রবার মধ্যরাত থেকে শনিবার ভোর পর্যন্ত দমকা বাতাস ও প্রচণ্ড ঢেউয়ের তোড়ে রাঙ্গাবালীর চরমোন্তাজ ইউনিয়নের মধ্য চরমোন্তাজ গ্রামের সোহরাব প্যাদার মালিকানাধীন এফবি মায়ের দোয়া, ছোটবাইশদিয়া ইউনিয়নের কোড়ালিয়া গ্রামের রাতুল মিয়ার মালিকানাধীন একটি ও চালিতাবুনিয়া ইউনিয়নের চরলতা গ্রামের নিজাম ফকিরের মালিকানাধীন একটি জেলে ট্রলার ডুবে যায়। এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চরমোন্তাজের ট্রলার মালিক সোহরাব প্যাদা, চালিতাবুনিয়া ইউপি সদস্য রানা হাওলাদার ও কোড়ালিয়ার মৎস্য ব্যবসায়ী নাসির মৃধা জানান, ডুবে যাওয়া ওই তিন ট্রলারে থাকা ৩৮ জন মাঝিমাল্লার মধ্যে ৩৩ জন উদ্ধারের খবর পাওয়া গেলেও ৫ জন নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারে শনিবার সকাল থেকে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান তারা। নিখোঁজ জেলেরা হলেন সোহরাব প্যাদার ট্রলারের জেলে রবিন হোসেন (২০), রাতুল মিয়ার ট্রলারের জেলে হাসান (১৭) ও মিজান (২৫) এবং নিজাম ফকিরের ট্রলারের জেলে মনির (৪০) ও সাইদুল (৩৭)। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বৈরী আবহাওয়ার কারণে বঙ্গোপসাগর উত্তাল রয়েছে। তাই গভীর সাগরে মাছ ধরার জেলে ট্রলারগুলো নিরাপদে আসতে শুরু করেছে। তবে এখনও অসংখ্য মাছ ধরার ট্রলার সাগরে রয়েছে বলে জানান জেলেরা। কোস্টগার্ড রাঙ্গাবালী আউট পোস্টের কন্টিনজেন্ট কমান্ডার রবিউল ইসলাম যুগান্তরকে বলেন, ট্রলারগুলো গভীর সাগরে ডুবেছে। আমরা খোঁজ নিচ্ছি। এ ব্যাপারে রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ বলেন, ট্রলার ডুবির খবর পেয়েছি। নিখোঁজ জেলেদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।