ধর্মপাশায় প্রশাসনের জনগুরুত্বপূর্ণ তিনটি পদ দীর্ঘ ১০বছর শূন্য

Wednesday, October 7th, 2020

গিয়াস উদ্দিন রানা,ধর্মপাশা(সুনামগঞ্জ)::  সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদে প্রশাসনের জনগুরুত্বপূর্ণ তিনটি পদ দীর্ঘ ১০বছর যাবৎ শূন্য রয়েছে ফলে দপ্তরিক কাজের জন্য দূর দুরান্ত থেকে আসা লোকজন চরম ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। জনস্বার্থে জরুরী ভিত্তিতে শূন্য স্থানে কর্মকর্তা নিয়োগ একান্ত প্রয়োজন বলে ভুক্তভোগীদের দাবি। ওই দপ্তরে দীর্ঘ ১২ বছর যাবৎ আব্দুল বারী নামে একজন অফিস সহকারী রয়েছেন। তিনিই মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার দায়িত্ব পালন করলেও অফিসটি প্রায় সবসময় বন্ধ থাকতে দেখা যায়। তার মোবাইল ফোনটিও বন্ধ থাকে।
উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মোঃ জাফর ইকবাল চৌধুরী প্রায় ২০১০ সালে বদলী হয়ে মৌলবী বাজার জেলার এক উপজেলায় চলেগেছেন। ওই দপ্তরে সহকারী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তার পদ তিনটি, এর মধ্যে একজন রয়েছেন। ওই দপ্তরটি ১০ বছর যাবৎ সহকারী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা এ.কে.এম সামছুল হককে দিয়ে দপ্তরিক কাজ পরিচালনা করে আসলেও সুনামগঞ্জ জেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো: শাহনুর (ভারপ্রাপ্ত) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এতে দুরদুরান্ত থেকে আসা লোক জন চরম ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন বলে ভূক্তভোগীরা জানান।
উপপেজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মো: মোতাহার হোসেন প্রায় পাঁচ বছর পূর্বে অফিসিয়াল কাজের জন্য ঢাকায় হেড অফিসে যাওয়ার পথে রাস্তায় সড়ক দূর্ঘটনায় মারা যান। ওই কার্যালয়ে সহকারী মহিলা বিষয়কের পদটি আট বছর যাবৎ শূন্য থাকায় অফিস সহকারী আব্দুল বারী নামের এক অফিস সহকারী দিয়ে দাপ্তরিক কাজ কর্ম চললেও অধিকাংশ সময় মহিলা বিষয়ক কার্যালয়টি বন্ধ থাকতে দেখা যায়।
ধর্মপাশা উপজেলা শিক্ষা অফিসার হাসিনা আক্তার প্রায় ১০মাস পূর্বে বদলী হয়ে অন্যত্র চলে যাওয়ার পর সিনিয়র সহকারী শিক্ষা অফিসার মো: আব্দুল আউয়াল শিক্ষা অফিসারের দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

দুপুর ১২টা ১৫ মিনিটের সময় গিয়েও দেখায়ায় মহিলা বিষয়ক কার্যালয়ে তালা ঝুলছে।