হিজলায় পুলিশ-জেলে সংঘর্ষ আহত-২পুলিশ

Saturday, October 17th, 2020

হিজলা প্রতিনিধি::  গতকাল হিজলায় নৌ পুলিশ এবং জেলেদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে এক পুলিশ গুরুতর আহত হয়ে হিজলা স্বাহ্যেক্েপ্লক্সে ভর্তি রয়েছে।
সূত্র জানায় বৃহস্পতিবার রাত ১২.৩০ থেকে ১.০০টার দিকে হিজলার মেঘনাার আন্তরভাম এলাকায় নৌ পুলিশ এবং জেলেদের মধ্যে সংঘর্ষের সৃষ্টি হয়। এতে নৌ পুলিশের ড্রাইভার মনিরুল ইসলাম, আবুজাফর গুরুতর আহত হয়। মনিরুলকে গুরুতর অবস্থায় শুক্রবার রাতেই হিজলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক বলেন তিনি বর্তমানে সংকা মুক্ত।
আহত মনিরুল জানানবৃহস্পতিবার সারে ১২ থেকে রাত ১টার মধ্যে ৫ থেকে ৭ জনের একটি জেলে দলকে নৌকাসহ আটক করার চেষ্টা করে, ২ জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় নৌ পুলিশ। এর পরেই জেলেদের ৪০ থেকে ৫০ জনের অপর আর একটি গ্রুপ তাদের ওপর আক্রমন চালায়। ছিনিয়ে নেয় আটককৃতদের।
নৌ থানার ওসি বেল্লাল হোসাইন জানান, রাতে অভিযানে উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং মৎস্যকর্মকর্তা ছিলেন। রাত ১০টার দিকে তারা দেবুয়া- আন্তরভাম এলাকায় নৌ পুলিশের টিম রেখে আসেন। পরবর্তীতে এ এস আই পারভেজ, এ এস আই নজরুল সহ সংগীয় ফোস একটি নৌকাকে চ্যালেঞ্জ করে ২ জনকে আটক করে পুলিশ। সংগে সংগে জেলেদেও বিশাল গ্রুপ এসে পুলিশের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। এতে নৌ পুলিশের সদস্য মনিরুল ইসলাম এবং আবুজাফরকে আহতকরে নদীতে ফেলেদিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়। রাতেই মনিরুলকে হিজলা স্বাহ্যকেম্পেক্সে ভর্তি করা হয়।
স্থানীয় একাধিক জেলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, দির্ঘদিন নৌ পুলিশ জেলেদের কাছ থেকে মাসহারা নিয়ে নদীতে মাছ শিকার করার সুযোগ করে দেন নৌ পুলি। আবার পরবর্তীতে তাদের আটক করে উক্ত মাসোহারা দেয়া জেলেদের। এতেই ক্ষিপ্ত হয়ে আক্রমন করে নৌ পুলিশের উপর।
হিজলা উপজেলা সিনিয়র মৎস্যকর্মকর্তা আব্দুল হালিম জানান, তিনি অভিযানে ছিলেন না। তবে বিষয়টি সম্পর্কে অবগত আছেন, দেবুয়া এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।
হিজলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বকুলচন্দ্র কবিরাজ প্রতিবেদককে ফোনে জানতে চাইলে জানান, হিজলায় নৌ পুলিশ জেলে সংঘর্ষ বা আহত বিষয় তিনি কিছু জানে না। সংবাদ লেখা পর্যন্ত মামলার প্রক্রিয়া চলথে।