২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার

৫০ বছর বয়সি মায়ের বিয়ে দিলেন মেয়ে, ভিডিও ভাইরাল

আপডেট: ডিসেম্বর ১৬, ২০২২

অনলাইন ডেস্ক;: সব রকমের ব্যবস্থা করে, রীতি নীতি পালন করে, নিজে দাঁড়িয়ে থেকে মায়ের বিয়ে দিলেন মেয়ে। তার এই উদ্যোগ এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে।

ভারতে শিলঙের মেয়ে দেবারতি রিয়া চক্রবর্তীর কীর্তিতে মুগ্ধ নেটিজেনরা। ইনস্টাগ্রামে তিনি আছেন দেব আরতি রিয়া চক্রবর্তী নামে। শেয়ার করেছেন বিয়ের প্রস্তুতি ও বিয়ের ভিডিও।

ক্যাপশনে দেবারতি লিখেছেন- আমি আমার জীবনে এরকম সাহসী ও আত্মবিশ্বাসী মহিলা আর দেখিনি। তুমি আমাকে প্রতিদিন অনুপ্রাণিত কর। আমি যা কিছু আজ হতে পেরেছি, সবই তোমার জন্য। তুমি এক অসাধারণ নারী এবং আমি তোমার জন্য শুধু ভালবাসা ও আনন্দ কামনা করতে পারি।

নতুন জীবনে মাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তিনি।

বিয়ের কনের সাজেও মাকে যে দারুণ দেখতে লেগেছে, সে কথাও জানাতে ভোলেননি দেবারতি।

চলতি বছর মার্চে মায়ের বিয়ে দেন দেবারতি। তার যখন বয়স মাত্র দুই বছর, তখন তার বাবা মারা যান। তিনি ছিলেন শিলঙের ডাক্তার। মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের জেরে তার মৃত্যু হয়। মাত্র ২৫ বছর বয়সে স্বামী হারন তবে মেয়ের কথা ভেবে, তার মুখের দিকে তাকিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করেননি দেবারতির মা মৌসুমী চক্রবর্তী। মেয়ের কথা ভেবে একাকিত্ব ও নিঃসঙ্গতাকেই সঙ্গী করে নিয়েছেন ওই নারী।

দেবরতী এখন মুম্বাইতে থাকেন। তিনি একজন ফ্রিল্যান্স ট্যালেন্ট ম্যানেজার হিসেবে কাজ করছেন। মায়ের দ্বিতীয় বিয়ের কথা বর্ণনা করতে গিয়ে দেবরতী বলেন, বিয়ের সিদ্ধান্ত নিতে মায়ের অনেক সময় লেগেছে। প্রথমে আমি তাকে কারো সাথে বন্ধুত্ব করতে বললাম। শুরুতে শুধু বলেছিলাম অন্তত কথা বলো। বন্ধু বানাও। তারপর আমি বললাম, এখন বিয়ে কর।

চলতি বছরের মার্চে পশ্চিমবঙ্গের স্বপনকে বিয়ে করেছেন দেবরতীর মা। দুজনেরই বয়স ৫০ বছর। দেবরতী বলেন, এটাই স্বপনের প্রথম বিয়ে। তিনি বলেন, বিয়ের পর মায়ের জীবনে অনেক পরিবর্তন এসেছে। তিনি এখন খুব খুশি। আগে সব কিছুতেই বিরক্ত হতেন। কিন্তু এখন সব কিছুতেই মজা করেন।

10 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন