২৩শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

শাহবাজের মন্ত্রিসভায় থাকছেন যারা

আপডেট: এপ্রিল ১৮, ২০২২

বিজয় নিউজ:: রাজনৈতিক টানাপড়েনের মধ্যেই নতুন মন্ত্রিপরিষদ গঠন হচ্ছে পাকিস্তানে। শপথ নেওয়ার এক সপ্তাহ পর সোমবার নতুন মন্ত্রিসভা ঘোষণা করতে যাচ্ছেন দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ।

মুসলিম লিগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) সিনিয়র নেতা মরিয়ম আওরঙ্গজেব ডন নিউজকে জানিয়েছেন, ফেডারেল সরকারের মন্ত্রিসভা সোমবার শপথগ্রহণ করবে। পিএমএল-এন ১৪টি মন্ত্রণালয় পাবে। পিপিপি পাবে ১১টি মন্ত্রণালয়। জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম (জেইউআই-এফ) পাবে দুটি মন্ত্রণালয়।

বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সূত্রের বরাত দিয়ে এক্সপ্রেস ট্রিবিউনের খবরে বলা হয়, মরিয়াম আওরঙ্গজেব নতুন সরকারের তথ্যমন্ত্রী আর মিফতাহ ইসমাইল অর্থমন্ত্রী হবেন এটা প্রায় নিশ্চিত।

মরিয়াম আওরঙ্গজেব জানিয়েছেন, জেইউআই-এফ এবং মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্টসহ (এমকিউএম) জোটের সব শরিককে মন্ত্রিসভায় জায়গা দেওয়া হচ্ছে। মন্ত্রিসভা গঠন নিয়ে রোববার জোটের যৌথ কমিটির দীর্ঘ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে মন্ত্রণালয় বণ্টন ও গুরুত্বপূর্ণ পদগুলো নিয়ে শরিকদের আপত্তি নিষ্পত্তি হয়েছে।

দলের এই মুখপাত্র জানান, প্রতিরক্ষা, অর্থ, স্বরাষ্ট্র, আইন ও বিচার, রেলওয়ে, তথ্য, জ্বালানি, পরিকল্পনা ও যোগাযোগের মতো মন্ত্রণালয়গুলোর দায়িত্ব নিতে চায় পিএমএল-এন।

পিপিপি চেয়ারম্যান বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিতে বলেছে দলটি। তবে শাহবাজের মন্ত্রিসভায় বিলাওয়াল যোগ দেবেন কিনা, তা এখনও অনিশ্চিত।

পাকিস্তান পিপলস পার্টির (পিপিপি) কো-চেয়ারম্যান আসিফ আলি জারদারি জোটের ‘গ্যারান্টর’ হিসেবে মন্ত্রিত্ব বণ্টনে শরিকদের দেওয়া তার প্রতিশ্রুতি পূরণের অঙ্গীকার করেছেন।

পিপিপির একটি সূত্র জানিয়েছে, প্রাপ্য অনুযায়ী দলগুলোর মধ্যে মন্ত্রণালয় বণ্টনে জারদারিকে সর্বময় কর্তৃত্ব দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফ। পিপিপিকে মন্ত্রিসভায় যোগ দিতেও বলেছেন তিনি।

পিপিপির সূত্রগুলো জানিয়েছে, পিপিপির নেতা ইউসুফ রাজা গিলানি পরবর্তী সিনেট চেয়ারম্যান হবেন বলেও জোটগতভাবে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

মন্ত্রিসভায় বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারি, মরিয়ম আওরঙ্গজেব, খাজা আসিফ, মিফতাহ ইসমাইল, জাহিদ হামিদ, আহসান ইকবাল, রানা সানাউল্লাহ, রানা তানভীর, শহিদ খাকান আব্বাসি, খাজা সাদ রফিক, হিনা রাব্বানি খার, শাজিয়া মারিকে দেখা যেতে পারে। এ ছাড়া সিন্ধুরপরবর্তী গভর্নর কে হবেন, তা পিপিপি ও এমকিউএম নির্ধারণ করবে।

এ ছাড়া জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম (জেইউআই-এফ) গৃহায়ণ ও পূর্ত মন্ত্রণালয় এবং ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয় পাবে।

মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্টসহ (এমকিউএম) পাবে সামুদ্রিকবিষয়ক ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়, বেলুচিস্তান আওয়ামী পার্টি ও বিএনবি মেঙ্গল গ্রুপও একটি করে মন্ত্রণালয় পেতে পারে।

34 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন