নদীতে ডুব দিয়ে মুখ দিয়ে ১৫ কেজি মাছ ধরেন এই যুবক!

Friday, December 6th, 2019

সুঘর নিষাদ।                                                                                                            ছবি-সংগৃহীত
বিজয় নিউজ:: নদীতে ঘন্টার পর ঘন্টা জাল ফেলে যেখানে মাছ ধরতে পারেন না জেলেরা সেখানে ডুব দিয়ে মুখ দিয়ে কামড়ে জীবিত মাছ ধরে ফেলেন এক যুবক।

তার নাম সুঘর নিষাদে। এমন পারদর্শীতা দেখিয়ে এখন বিস্ময় বালকে পরিণত এই যুবক। সোশ্যাল মিডিয়ায় রীতিমতো ভাইরাল সে। শিরোনাম হয়েছেন পত্রিকায়।

ভারতের উত্তরপ্রদেশের হামিরপুর জেলার মেরাপুর গ্রামের বাসিন্দা এই সুঘর নিষাদ।

গ্রামবাসীরা জানান, কোনো জাল ব্যবহার না করে সুঘর নদীতে ডুব দিয়েই হাত দিয়ে মাছ ধরতে পারে। এমন কি মুখ দিয়ে কামড়ে জ্যান্ত মাছ ধরে আনে সে। কখনও দেখা যায়, ডুব দিয়ে কিছুক্ষণ পরে সুঘর যখন নদী থেকে ওঠেন, তখন তার মুখে আর দুই হাতে মাছ। এক ডুবেই তিনটি মাছ ধরে সুঘর। শুধু তাই নয়, কেউ নিজের পছন্দের মাছের তালিকা তাকে ধরিয়ে দিলে নদীতে নেমে কিছুক্ষণ চেষ্টা করেই সেই মাছটি ধরে নিয়ে আসেন সুঘর।

এভাবেই মাছ ধরেই সুঘর তার জীবিকা চালায় বলে জানান গ্রামবাসী।

তারা জানান, প্রতিদিন অন্তত ১০ থেকে ১৫ কিলোগ্রাম মাছ ধরেন সুঘর। সে হিসাবে দৈনিক দুই হাজার টাকা আয় হয় তার। দরিদ্রতার কারণে পঞ্চম শ্রেণি অবধি পড়াশোনা করেছেন সুঘর। তাই ভালো কোনো চাকরি না পেয়ে এভাবেই জীবিকা নির্বাহ করছে সুঘর।

স্থানীয়রা আরও জানিয়েছেন, পানিতে অনেকক্ষণ ডুব দিয়ে থাকাসহ বেশ ভালো সাঁতার জানে সুঘর। আর তার এই প্রতিভাকে কাজে লাগিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। শুধু মাছই ধরছেন না সুঘর, যমুনা নদীতে পড়ে যাওয়া অনেককেই বাঁচিয়েছেন সুঘর।

নিজের এই বিস্ময়কীর্তি সম্পক্যে এক ভারতীয় সংবাদ সংস্থাকে সুঘর বলেন, বাবা শিবপ্রসাদের কাছ থেকে তিনি এই কৌশল শিখেছি। ছোটবেলা থেকেই বাবার সঙ্গে নদীতে মাছ ধরতে যেতাম। তখন দেখতাম জাল ব্যবহার না করেই অনায়াসে বাবা হাত দিয়ে মাছ ধরছেন। বাবার সেই মাছ ধরার অদ্ভুত কৌশল খুব মন দিয়ে শিখেছি।

ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, বলিউডের সুপারহিট ছবি ‘কৃষে’ নদীতে হাত দিয়েই মাছ ধরেছিল অভিনেতা ঋত্বিক রোশন। এখন সুঘরকে বাস্তবের কৃষ বলছেন ভারতীয়রা। তাকে ‘বুন্দেলখন্ড ফিশারম্যান’ উপাধি দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যমটি।