১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

শিরোনাম
বরিশাল শায়েস্তাবাদ চুড়ামন কমিউনিটি ক্লিনিকে থাকেনা ডাক্তার থাকেনা থোলা! দেখার কেউ নেই (পর্ব-১) ছাতা ধরে রাখলেন তরুণী রিকশাচালকের মাথায় হিজলার মেঘনায় ভাঙ্গন শুরু-ঝুকিতে পাঁচটি স্কুল-হুমকির মুখে উপজেলা প্রশাসনিক ভবণ সরকারের পূরণ হতে পারে মন্ত্রিসভার ‘শূন্যস্থান’ শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হকের ১৪৭ তম জন্মবার্ষীকিতে জীবন কর্মে পথচলা তথ্য হিজলা ডাক বিভাগের দুর্নীতির-অনিয়মের হালখাতা খুলছে ডাক বিভাগ – পর্ব ০২ আই ডি এল সি ফাইন্যাস সরকারি নির্দেশ অমান্য করে আদায়ের করে কিস্তি ,মাঠ কর্মীদের দেখে ব্যবসায়ীরা পালায়! (২য় পর্ব) বরিশালের  হিজলার মানচিত্রে শকুনের থাবা॥একক আসন মেহেন্দিগঞ্জ !(১ম পর্ব) বরিশাল হিজলায় রাজনীতি না ভিক্ষা চুরি নীতি

হিজলার চরের আতংক রফিক লাঠিয়াল-শত শত একর ভুরি মালিক

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১, ২০২১

সাইফুল ইসলাম:;হিজলার প্রত্যন্ত চরের শত শত একর খাস জমির মালিক রফিক লাঠিয়াল খোকন চোর।নিজ নামে এক ছটাক জমি নেই। নেই হিজলায় বাড়ি, তার পরেও রফিকের দখলে কয়েক শত একর জমি।তার নিয়ন্ত্রনে পুরো চরজানপু এলাকা।
খায়ের মৃধা, রকমান চোকদার পুত্র, লতিফ হাং,কামাল মেলকার, রিপন খানসহ একাধিক ব্যাক্তি আশ্রয়ে বেড়ে উঠছে রফিক লাঠিয়াল, খোকন চোর। এমন অভিযোগ প্রত্যন্ত চরের মানুষের।
শেখ জালাল আহম্মেদ জানান ওয়ারিশ সূত্রে হিজলা উপজেলার হিজলাগৌরব্দীর চরজানপুর মৌজায় বেশ কিছু জমি রয়েছে তাদের।ঐ জমি চাষ করতে গিয়ে বিপত্তি। রফিক লাঠিয়ালে দখলে সম্পূর্ন জমি।
স্থানীয় সেলিম, আঃ রব সরদার, ইমাম হোসেন সহ একাধিক ব্যাক্তি জানান জালাল আহম্মেদের জমিই তারা ভোগদখলে রয়েছেন। এ জমিতে চাষ দিতে গেলে সব জমিই দাবি করে রফিলাঠিয়াল।
চরজানপুরে রেকর্ডিয় জমির বাহিরে রয়েছে কয়েক হাজার একর খাস জমি।এসব জমি লক্ষিপুর জেলার রায়পুরের মফিজ চৌকিদারের পুত্র রফিক চৌকিদার(রফিক লাঠিয়াল) দখলে রেখে বছরের পর বছর ভোগ দখল করে আসছেন। বিষয়টি প্রশাসনকে অবহিত করা হলেও থানা এমনকি ভুমি অফিস কোন কার্যকরি ভুমিকা রখেননি বলে অভিযোগ তাদের।
লাঠিয়াল রফিক জানায় ঐ চরে তার নিজস্ব কোন জমি নেই।খায়ের মৃধা,কামাল মেলকার, লতিফ হাং তাকে জমি দেখভালের দায়িত্ব দিয়েছেন, তা তিনি পালন করেন।তার নাম রফিক লাঠিয়াল কেন এমন প্রশ্নে জানান স্থানীয়রা উপধি দিয়েছেন।
এদিকে রিপন খান জানান, তিনি ক্রয়সূত্রে জমির মালিক। নিজের জমির বাহিরে অন্য কোন জমি তার নেই।লতিফ হাং জানান তিনি ঐ চরে জমি ভোগ দখলে নেই। আগে ছিলেন।
এতে করে বছরের পর বছর রাজস্ব হারাচ্ছেন সরকার। লাভবান হচ্ছে এক শ্রেনীর সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারি।

236 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন