১৮ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

শিরোনাম
বরিশাল শায়েস্তাবাদ চুড়ামন কমিউনিটি ক্লিনিকে থাকেনা ডাক্তার থাকেনা থোলা! দেখার কেউ নেই (পর্ব-১) ছাতা ধরে রাখলেন তরুণী রিকশাচালকের মাথায় হিজলার মেঘনায় ভাঙ্গন শুরু-ঝুকিতে পাঁচটি স্কুল-হুমকির মুখে উপজেলা প্রশাসনিক ভবণ সরকারের পূরণ হতে পারে মন্ত্রিসভার ‘শূন্যস্থান’ শেরে বাংলা এ কে ফজলুল হকের ১৪৭ তম জন্মবার্ষীকিতে জীবন কর্মে পথচলা তথ্য হিজলা ডাক বিভাগের দুর্নীতির-অনিয়মের হালখাতা খুলছে ডাক বিভাগ – পর্ব ০২ আই ডি এল সি ফাইন্যাস সরকারি নির্দেশ অমান্য করে আদায়ের করে কিস্তি ,মাঠ কর্মীদের দেখে ব্যবসায়ীরা পালায়! (২য় পর্ব) বরিশালের  হিজলার মানচিত্রে শকুনের থাবা॥একক আসন মেহেন্দিগঞ্জ !(১ম পর্ব) বরিশাল হিজলায় রাজনীতি না ভিক্ষা চুরি নীতি

ভোলায় অপরাধ সংশোধন ও পুনর্বাসন সমিতির সদস্য হলেন ইকবাল মাল

আপডেট: অক্টোবর ৯, ২০২১

ইয়াছিনুল ঈমন,ভোলা প্রতিনিধি:: অপরাধ সংশোধন ও পুনর্বাসন সমিতি, ভোলা এর সদস্য হলেন গ্রামীণ মানব কল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইকবাল মাল।
ইকবাল মাল বলেন আমার সমাজসেবামূলক গ্রামীণ মানব কল্যাণ সংস্থার মাধ্যমে আমি সমাজের অসহায়দের সাহায্য করে থাকি বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম গ্রহণ করি বনায়ন কর্মসূচি করি বিভিন্ন শিক্ষামূলক কর্মসূচি করে থাকি। আমার সকল কর্মসূচি স্বেচ্ছাসেবী মূলক এবং বিনামূল্যে প্রদান করা হয়।
গ্রামীণ মানব কল্যাণ সংস্থার চেয়ারম্যান এবং অপরাধ সংশোধন ও পুনর্বাসন সমিতি ভোলা এর সদস্য ইকবাল মাল আরো বলেন আমার সামাজিক ও মানবিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে আমি অপরাধ সংশোধন ও পুনর্বাসন সমিতির সদস্য হতে ইচ্ছুক হয়েছিলাম। তারই ধারাবাহিকতায় আমাকে সমিতির সদস্য করা হয়েছে । অপরাধ একটি সামাজিক ব্যাধি। এটা সমাজ ও আইনের চোখে অন্যায়। তাই উন্নত দেশসমূহে অপরাধীদের বিচার করে তাদের শাস্তি প্রদানের পাশাপাশি প্রবেশনের মাধ্যমে সেোশাধনের বিধান রয়েছে। অনেক ক্ষেত্রে শাস্তি অপরাধ প্রতিরোধে সহায়ক না হয়ে অপরাধ বিস্তারে সহায়ক হয়। শাস্তি নয়, সংশোধনই এ কার্যক্রমের মূল লক্ষ্য। তাই আধুনিক চিন্তাবিদ ও সমাজবিজ্ঞানীগণ অপরাধীদের শাস্তির পরিবর্তে গঠনমূলক সংশোধনীর পক্ষে মত প্রকাশ করেন। এ ধ্যান ধারনার উপর ভিত্তি করেই প্রবেশন কার্যক্রমের উৎপত্তি হয়েছে। যারা প্রথম বারের মত অপরাধ করে এবং যাদের লঘুদন্ডে দন্ডিত করা হয়, সে সকল অপরাধীর শাস্তি স্থগিত রেখে প্রবেশন কর্মকর্তার আওতায় এনে তাদের চরিত্র সংশোধনের মাধ্যমে সমাজে প্রতিষ্ঠিত করা হয়ে থাকে। এছাড়া বিচারাধীন আসামী যারা আইনী সহায়তা গ্রহণে অক্ষম তাদের আইনী সহায়তা প্রদান, নিরাপদ হেফাজতীদের নিরাপত্তাসহ সকল প্রকার সহায়তা প্রদান, সাজা প্রাপ্ত জেল কয়েদীদের শিক্ষা ও প্রশিক্ষণ শেষে সমাজে পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করাই এ সমিতির মূল লক্ষ্য।

27 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন