১১ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

বরিশালে ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন ভূমিসহকারি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট: জুলাই ২৮, ২০২২

বিজয় নিউজ :: পুরোনো রাস্তা বন্ধ করে দেয়াল নির্মাণকাজে বাধা দেওয়ায় জনপ্রতিনিধি ও ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন স্থানীয় ছিদ্দিক সরদার এবং রুহুল সরদার নামের আপন দুই সহদর।এ ঘটনাটি ঘটে হিজলার কারিকাপুরে।
স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, কিছুদিন আগে কালিকাপুর গ্রামের সিদ্দিকুর রহমান সরদার ও শাহজাহান সরদারের বাড়ির সামনের জনগণের যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ করে দেয়াল নির্মাণের কাজ শুরু করেন প্রভাবশালীরা। এতে স্থানীয় কয়েক’শ নারী-পুরুষ এই কাজে বাধা দেন। কিন্তু বাধায় কাজ না হলে বিষয়টি উপজেলা প্রশাসনকে অবহিত করেন তাঁরা। পরে তৎকালীন সহকারী কমিশনার (ভূমি) রবিউল ইসলাম সরেজমিনে গিয়ে দেয়ালটি ভেঙে দেন।
রবিউল ইসলামের বদলির সংবাদ পেয়ে তাঁরা পুনরায় রাস্তা বন্ধ করে কাজ শুরু করেন। বিষয়টি স্থানীয়রা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বকুল চন্দ্র কবিরাজ এর কার্যালয়ে পুনরায় লিখিতভাবে অভিযোগ করেন। ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ২৫ জুলাই বুধবার আবার ওই স্থাপনা ভেঙে দেওয়া প্রশাসন।
উচ্ছেদের সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার বকুল চন্দ্র কবিরাজ, ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শাজাহান তালুকদার এবং কালিকাপুর গ্রামের ইউপি সদস্য রাকিব শিকদারসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।
এর পরের দিন গতকাল বুধবার সিদ্দিকুর রহমান সরদার বরিশাল অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে বাদী হয়ে জনপ্রতিনিধি ও ইউনিয়ন সহকারি ভূমি কর্মকর্তা আলাউদ্দিন এবং অফিসের সহকারির বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন।
স্থানীয়দের দাবি সিদ্দিকুর রহমান ও শাহজাহান সরদার সহ একটি প্রভাবশালী মহল শুধু এলাকাবাসীর যাতায়াতের রাস্তাই বন্ধ করেননি, সরকার দেয়া জনগণের বিশুদ্ধ পানি পান করার গভীর নলকূপের মাথা খুলে মাটির নিচ দিয়ে লাইন বের করে তাঁদের বাড়িতে নিয়ে যান।
ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শাজাহান তালুকদার বলেন, ‘জনস্বার্থে কাজ করে যদি আমার নামে মামলা হয় তাহলে আইনিভাবে সেটি মোকাবিলা করব।
গুয়াবাড়িয়া ইউনিয়ন সহকারি ভূমি কর্মকর্তা মোঃ আলাউদ্দিন জানান, আমার নিজের কোন সম্পদ নয়। নিজস্ব স্বার্থও নেই। যা করো হয়েছে জনগনের জন্য। জনগনের চলাচলের রাস্তার উপর বেড়া তেরী, গাছ লাগানো এবং সরকারি ডিপটিউবওয়েল নিজের কব্জায় নেয়া কতটুকু সমিচিন তা এলাকার জনগণ ভালো জানেন। আমি শুধু প্রতিবেদন দিয়েছি। প্রশাসন ব্যবস্থা নিচ্ছেন।আশাকরি আদালত সেভাবে দেখবেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বকুল চন্দ্র কবিরাজ জানান, জনগনের জন্য রাস্তা দেয়া হয়েছে। ব্যাক্তির জন্য নয়।আইনী বিষয়টি আইনী ভাবে দেখা যাবে।

122 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন