২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

হিজলায় ৩ মাদক কারবারি আটক। পুলিশের হাত থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা

আপডেট: সেপ্টেম্বর ৫, ২০২২

সাইফুল ইসলাম :: বিপুল পরিমান মাদক সহ হিজলায় তিন মাদক কারবারিকে আটক করেছে পুলিশ। ছিনিয়ে নিতে ব্যার্থ চেষ্টা। অবশেষে থানা গারদে।

৫ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ১০টায় হিজলার কাউরিয়া বন্দর থেকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হিজলা থানা পুলিশ তিন মাদক কারবারিকে আটক করতে সক্ষম হন। এসআই বিল্লাল হোসেন ও এ এস আই সাইফুল ইসলাম এর নেতৃত্বে একটি টহল পুলিশের দল নরসিংহপুর গ্রামের মোঃ হাশেম শেখের পুত্র রাব্বি ২২,কাউরিয়া বাজার তৈল ব্যাবসায়ী দলিল সরদারের ছেলে মাসুম ও শহিদ হাওলাদারের ছেলে রাব্বি কে আটক করে হিজলা থানা পুলিশ । বিষয়টি স্থানীয় ভাবে ছড়িয়ে পড়লে  রাব্বির বড় ভাই রাসেল তার বন্ধুবান্ধব নিয়ে পুলিশের গাড়িতে হামলা চালায়। তাকে গাড়ি থেকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হলে পুলিশ কোন উপায় না পেয়ে মাদক কারবারি রাব্বিকে স্থানীয় ইউপি সদস্যদের মাধ্যমে গুয়াবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে হেফাজত রাখে।পরিস্থিতি নিজেদের নিয়ন্ত্রনে নিতে থানায় খবর দিলে অতিরিক্ত পুলিশ এসে অপর দু’জনকে আটকাতে সক্ষম হন। এ নিয়ে পুলিশের খাতায় আটকের সংখ্যা তিন।

এসআই বিল্লাল হোসেন ও এ এস আই সাইফুল ইসলাম জানান এরা প্রত্যেকে ইয়াবা এবং গাজা বিক্রেতা ও সরবরাহকারি। উপজেলায় গাজা এবং ইয়াবা সরবরাহ করে থকেন এমন সংবাদ পুলিশের কাছে রয়েছে। আটককৃতরা প্রত্যেকে একই গ্রামের বাসিন্দা। এরা হলেন নরসিংহপুর গ্রামের মোঃ হাশেম শেখের পুত্র রাব্বি ২২, পূর্ব কোড়ালিয়ার শহিদ হাওলাদার ছেলে মোঃ সাব্বি হাওলাদার (২০) নরসিংহপুর গ্রামের দলিলুর রহমানের ছেলে মোহাম্মদ মাসুম (১৭) দির্ঘদিন যাবত এ ব্যবসা করে আসছিল। এদের একটি বড় সেল্টার গ্রুপ রয়েছে। এদের ধরতে পুলিশ আগে থেকেই প্রস্তুতি চালিয়ে আসছিল।

হিজলা থানা অফিসার ইনচার্জ ইউনুস মিয়া ঘটনার সততা স্বীকার করে বলেন আটককৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশের কাজে বাধা দেওয়ার কারণে আরো দু’জনকে আটক করে থানা হাজতে নিয়ে আসা হয়েছে। আইনগত প্রক্রিয়া চলছে।

203 বার নিউজটি শেয়ার হয়েছে
  • ফেইসবুক শেয়ার করুন